মঙ্গলবার, মে ১৭, ২০২২ | ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

কুকুর-ইঁদুরের প্রস্রাব থেকে ছড়াচ্ছে মারণ অসুখ লেপটোস্পাইরোসিস, সতর্কবার্তা স্বাস্থ্যদপ্তরের


  • Logo
  • সোমবার সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২১
কুকুর-ইঁদুরের প্রস্রাব থেকে ছড়াচ্ছে মারণ অসুখ লেপটোস্পাইরোসিস, সতর্কবার্তা স্বাস্থ্যদপ্তরের
495 views

ভরা ভাদ্রে অঝোরে বৃষ্টিতে রাস্তায় জল জমায় সেই জল পেরিয়ে বাড়িতে ঢুকতেই দেখা দিতে পারে পায়ের পেশি, হতে পারে চোখ টকটকে লাল, ঘাড়ে চরতে পারে চরম ব্যথা। তবে এইসব একটি শারিরীক রোগের উপসর্গ, যে টিকে বলা হয়, লেপটোস্পাইরোসিস, স্বাস্থ্যভবনের নয়া বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, রাস্তায় জমা জলে সারমেয় কিম্বা ইঁদুরের প্রস্রাব মিশেই এই রোগের সম্ভবনা দেখা দিতে পারে। যা কিনা একটা মারণ অসুখ।

করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের মাঝেই এই অসুখ মাথাচাড়া দিলে সর্বনাশ। ইতিমধ্যেই পশ্চিমবঙ্গ স্বাস্থ্যদপ্তর লেপটোস্পাইরোসিস নিয়ে সতর্কতা জারি করেছে। প্রতিটি মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষের কাছে পৌঁছে গিয়েছে স্বাস্থ্যভবনের এই অ্যাডভাইজরি। যদিও অসুখ মাথাচাড়া না দিলেও লেপটোস্পাইরোসিসের জন্যও অনুকূল পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে ইতিমধ্যেই।
এই মারণ অসুখ হওয়ার আগেই সর্তকতা নিতে চায় রাজ্যের স্বাস্থ্যদপ্তর। যদিও ডায়রেক্টর অফ হেলথ সার্ভিস এবং ডায়রেক্টর অফ মেডিক্যাল এডুকেশন যৌথ অ্যাডভাইজরি বলছে, আদতে এই অসুখ চারপেয়েদেরই হয়।

কুকুর–ইঁদুর কিম্বা গবাদি পশুর শরীরে একধরণের স্পাইরাল ব্যাকটেরিয়ার দেখা মেলে। তার নামই লেপটোস্পাইরা। এর থেকেই ছড়াচ্ছে অসুখ। আক্রান্ত পশুর প্রস্রাবে থিকথিক সেই ব্যাকটেরিয়া শরীরে লাগলেই বিপদ। আর ওই পশুর প্রস্রাব ত্বকের সংস্পর্শে এলেই অসুখ ছড়ায়। জনস্বাস্থ্য আধিকারিক অনির্বাণ দলুই জানিয়েছেন, বর্ষায় এবং বর্ষা পরবর্তী স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়া এই অসুখ ছড়ানোর পক্ষে অনুকূল। শরীরে ব্যাকটেরিয়া প্রবেশের পর উপসর্গ দেখা দিতে ৫ থেকে ১৪ দিন সময় লাগে। কোনও কোনও সময় নোংরা প্রস্রাব মাড়িয়ে আসার এক মাস পরেও অসুখ দেখা দিতে পারে।

স্বাস্থ্যভবনের অ্যাডভাইজরি বলছে, রুটিন ইউরিন এক্সামিনেশন, রক্তের টিএলসি, ডিএলসি, ইএসআর, প্লেটলেট কাউন্ট করলেই ধরা পরে অসুখ। এ অসুখে মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয় যকৃৎ। আর এই উপসর্গ কম থাকলে ডক্সিসাইক্লিন দিতে হবে। প্রসূতিদের ক্ষেত্রে প্রতি ৬ ঘন্টা অন্তর অ্যামক্সিসিলিন দিয়ে চিকিৎসা করতে হবে। আট বছর বয়স পর্যন্ত শিশুদের ক্ষেত্রে শিশুর ওজন বুঝে অ্যামক্সিসিলিন সিরাপ দিতে বলেছে স্বাস্থ্যভবন। যাঁরা নালা পরিষ্কার করেন, তাদেরই সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

মন্তব্য:

মন্তব্য বন্ধ আছে।

অনুরূপ খবর

ফের হাতির হানায় মৃত্যু হল এক ব্যক্তির
  • বৃহস্পতিবার ডিসেম্বর ২৪, ২০২০
ফের হাতির হানায় মৃত্যু হল এক ব্যক্তির