মঙ্গলবার, জুলাই ০৫, ২০২২ | ২০ আষাঢ় ১৪২৯

“এক পয়সাও দেবেন না!” সরকারি প্রকল্পে বাড়ি করা নিয়ে ফের সতর্ক করলেন মহুয়া.


  • Logo
  • বুধবার ফেব্রুয়ারী ২৩, ২০২২
“এক পয়সাও দেবেন না!” সরকারি প্রকল্পে বাড়ি করা নিয়ে ফের সতর্ক করলেন মহুয়া.
683 views

নতুন আশা :সরকারি প্রকল্পে বাড়ি পেতে দিতে হবে টাকা! অভিযোগ পেয়ে নেটিজেনদের ফের সতর্ক করলেন কৃষ্ণনগরের সাংসদ মহুয়া মৈত্র। নিজের ফেসবুক পেজে একটি পুরনো ভিডিয়ো শেয়ার করে সাধারণকে সচেতন করেছেন তিনি। সরকারি আবাস যোজনায় বাড়ি পাওয়ার ক্ষেত্রে কেউ টাকা চাইলে অবিলম্বে অভিযোগ জানাতে বলেছেন সাংসদ। বাড়ি তৈরির বরাদ্দ পেতে দালাল বা মিডলম্যানকে টাকা না দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। ওই ভিডিয়োটিতে তিনি বলেন, “কৃষ্ণনগর লোকসভা ও করিমপুর বিধানসভার প্রতিটি ব্লকে আবাস যোজনার ঘর তৈরির টাকা এসেছে। সেই প্রকল্পের ফায়দা তুলতে কিছু অসাধু মানুষ সচেষ্ট। তারা বাড়ি বাড়ি পৌঁছে গিয়ে বলছে, ঘরের জন্য বরাদ্দ এসেছে। তা পাওয়ার জন্য তাঁদের টাকা দিতে হবে।”

প্রকল্পের নাম করে টাকা তোলা হচ্ছে ওই অভিযোগ পাওয়ার পর, গত ১৯ তারিখে একটি ভিডিয়ো বার্তার মাধ্যমে তাঁর এলাকার সাধারণ মানুষকে আরও একবার সচেতন করতে চেয়েছেন সাংসদ ( Mahua Moitra )। তিনি বলেন, “কোনও পরিবারের নাম বাংলা আবাস যোজনা বা প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার তালিকায় এলে সেই নাম বাদ দেওয়ার ক্ষমতা কারও নেই। আবার নাম না থাকলে তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত করার ক্ষমতাও কারও নেই। তাই প্রকল্পের জন্য কাউকে এক পয়সা দেবেন না।”কেউ টাকা চাইলে প্রশাসনের কাছে অভিযোগ জানানোর পরামর্শ দিয়েছেন মহুয়া (Mahua Moitra)। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “টাকা চাইতে এলেই ভয় না পেয়ে দ্রুত থানার OC, BDO এবং সাংসদের দফতরে এসে অভিযোগ দায়ের করুন। এটা বন্ধ করতেই হবে এবং তার জন্য জনসাধারণকেই এগিয়ে এসে অভিযোগ জানাতে হবে।” ভিডিয়োর একেবারে শেষের দিকে তিনি বলেন, “কেউ এসে যদি টাকার দাবি করেন তাঁর জন্য নাম করে অভিযোগ করুন। সে যে কোনও দলের ব্যক্তি হোক। অভিযোগ করুন। নাম না জানালে ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব নয় বলে জানিয়ে দিয়েছেন তিনি।”

২০২০ সালে ওই ভিডিয়ো বার্তা দিয়ে প্রশাসনকে সতর্ক করেছিলেন কৃষ্ণনগরের সাংসদ Mahua Moitra। যা এদিন আবারও শেয়ার করেন সাংসদ। ওই ভিডিয়ো বার্তার পর আবারও সার্ভে করেছিলেন BDO-রা।

মন্তব্য:

মন্তব্য বন্ধ আছে।

অনুরূপ খবর