মঙ্গলবার, জুলাই ০৫, ২০২২ | ২০ আষাঢ় ১৪২৯

আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে গ্রেফতার রিপাবলিক টিভি-র এডিটর-ইন-চিফ অর্ণব গোস্বামী গ্রেফতার হল রিপাবলিক টিভি-র এডিটর-ইন-চিফ অর্ণব গোস্বামী।


  • Logo
  • বৃহস্পতিবার নভেম্বর ৫, ২০২০
আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে গ্রেফতার রিপাবলিক টিভি-র এডিটর-ইন-চিফ অর্ণব গোস্বামী গ্রেফতার হল রিপাবলিক টিভি-র এডিটর-ইন-চিফ অর্ণব গোস্বামী।
741 views

বুধবার সকালে মুম্বই পুলিশের প্রায় ১২ জনেরও বেশি অফিসার গ্রেফতার করার জন্য তাঁর বাড়িতে। জানা যায় ২০১৮ সালে ইন্টিরিওর ডিজাইনার তথা আর্কিটেক্ট অন্বয় নায়েক ও তার মা কুমুদ নায়েকের মৃত্যুর ঘটনায় প্ররোচনার অভিযোগে গ্রেফতার করা হল তাঁকে । এই মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অর্ণব গোস্বামীকে রায়গড়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।উল্টোদিকে জানা যায় অর্ণব গোস্বামী তাঁর সঙ্গে পুলিশের ধ্বস্তাধ্বস্তির অভিযোগ জানিয়েছে । একই সঙ্গে তাঁর স্ত্রী, ছেলে, শ্বশুর ও শাশুড়ির সঙ্গেও অভ্যবতা করেছে পুলিশ বলে অভিযোগ।

জানা যায় ২০১৮ সালে ৫৩ বছরের অন্বয় নায়েক ও তাঁর মা আত্মঘাতী হয়েছিলেন। অন্বয়ের লেখা সুইসাইড নোটে লেখা ছিল, অর্ণব গোস্বামী ও আরও দু জন তাঁকে ৫.৪০ কোটি টাকা দেননি। সেই টাকা না পেয়ে আর্থিক সমস্যায় পড়েছিলেন তিনি। অন্বয় কনকর্ড ডিজাইনার প্রাইভেট লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ছিলেন। রিপাবলিক টিভির হয়ে কাজও করেছিল অন্বয়ের সংস্থা। কিন্তু রিপাবলিক সেই টাকা মেটায়নি বলে অভিযোগ ছিল অন্বয়ের সেই কারণে তাঁকে ও তাঁর মাকে মৃত্যুবরণ করতে হল। ২০১৯ সালে রায়গড় পুলিশ মামলাটি বন্ধ করে দিলেও অন্বয় নায়েকের মেয়ে আদন্যা নায়েক মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখের কাছে আলিবাগ পুলিশ এই মামলার তদন্তে গাফিলতি করেছে বলে অভিযোগ জানায়। এরপর ২০২০ সালের মে মাসে মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ ঘোষণা করেন যে এই মামলার পুনর্তদন্ত শুরু করবে সিআইডি।

প্রসঙ্গত, বেশ কিছুদিন ধরেই বিভিন্ন কারণে মুম্বই পুলিশের সঙ্গে সংঘাত চলছিল অর্ণবের। সুশান্ত মামলা থেকে শুরু করে ফেক টিআরপি কেস, রিপাবলিক টিভি ও মুম্বই পুলিশের মধ্যে ক্রমাগত চলেছে দোষারোপের পালা। তারমধ্যেই ২০১৮ সালের পুরনো মামলায় গ্রেফতার করা হল অর্ণবকে।উল্লেখ্য এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর এবং কেন্দ্রীয়মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি।

মন্তব্য:

মন্তব্য বন্ধ আছে।

অনুরূপ খবর