মঙ্গলবার, জুলাই ০৫, ২০২২ | ২০ আষাঢ় ১৪২৯

উনি বেশিদিন বিজেপিতে থাকবেন না’, শুভেন্দুর দলবদলের জল্পনা উস্কে দিলেন ফিরহাদ.


  • Logo
  • সোমবার ফেব্রুয়ারী ২১, ২০২২
উনি বেশিদিন বিজেপিতে থাকবেন না’, শুভেন্দুর দলবদলের জল্পনা উস্কে দিলেন ফিরহাদ.
670 views

নতুন আশা :শুভেন্দু অধিকারী বেশিদিন বিজেপিতে থাকবেন না, বিস্ফোরক দাবী পরিবহণ মন্ত্রী তথা কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমের। পাশাপাশি তিনি শুভেন্দুকে মীরজাফর বলেও কটাক্ষ করেন। ১০৮ টি পৌরসভা ভোটের জন্য দলীয় প্রার্থী‌দের সমর্থনে শনিবার বারুইপুরে প্রচারে আসেন ফিরহাদ। সেখানেই এই মন্তব্য করেন তিনি। ফিরহাদ জনসভা থেকে সিপিআই(এম)-কংগ্রেসের পাশাপাশি রাজ্যের বিরোধী দল নেতাকেও নিশানা করেন। তিনি বলেন, ‘আজকাল মীরজাফর ও দলত্যাগকারীরা বিরোধী দলের নেতা। তবে, শুভেন্দু অধিকারী বেশিদিন বিজেপিতে থাকবেন না। তিনিই ময়দানে একা, অন্য সব বিজেপি নেতারা ঘরে ঢুকে পড়েছেন।’ কোনও মূল্যেই শুভেন্দু অধিকারীকে তৃণমূলে ফিরিয়ে নেওয়া হবে না বলেও স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন ফিরহাদ হাকিম।

তৃণমূল সূত্রে জানা গিয়েছে, বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর শুভেন্দু যেভাবে তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে সুর চড়াচ্ছেন, তাতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বেশ ক্ষুব্ধ। শুভেন্দু অধিকারী বিভিন্ন ইস্যুতে মমতা সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত সোচ্চার। উল্লেখ্য, শুভেন্দু অধিকারী বাংলা বিধানসভা নির্বাচনের আগে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের উপস্থিতিতে পদ্ম শিবিরে যোগ দেন।এর আগে অনেকবার শুভেন্দুর তৃণমূলে ঘর ওয়াপসির গুঞ্জন ওঠে। অনেক তৃণমূল নেতারাই এই নিয়ে মন্তব্য করেছেন, যদিও বার বার শুভেন্দু সেই দাবী প্রত্যাখ্যান করেছেন এবং স্পষ্ট জানিয়েছেন যে, তৃণমূলে ফিরে যাওয়ার কোনও ইচ্ছা তাঁর নেই। তৃণমূলের লোকেরা এসব কথা ছড়িয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টির চেষ্টা করছে। গুজব উপেক্ষা করার পরামর্শ দেন বিজেপি নেতা। প্রসঙ্গত, গত বছর বাংলা বিধানসভা নির্বাচনের আগে, তৃণমূল কংগ্রেসের অনেক নেতা বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন, তবে বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের বিপুল বিজয়ের পরে, অনেক নেতা একে একে দলে ফিরে এসেছেন। এর মধ্যে রয়েছেন মুকুল রায়, রাজীব ব্যানার্জী, সব্যসাচী দত্ত প্রমুখ। শুধু তাই নয়, বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়ও যোগ দিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসে। এবারে শুভেন্দুর তৃণমূলে ফেরা নিয়ে আরও একবার জল্পনা উস্কে দিলেন পরিবহণ মন্ত্রী। আর সেই জল্পনা আদৌ কতটা ফলপ্রসূ হয়, না কেবল জল্পনা হয়েই থেকে যায়, সেটাই এখন দেখার।

মন্তব্য:

মন্তব্য বন্ধ আছে।

অনুরূপ খবর